Entrepreneur

ধৈর্য্য ও কঠোর পরিশ্রমই আজ আমার এই অবস্থান _রওশন ডালিয়া

SM ALAMGIR

পৃথিবীতে কেউ সাফল্যের চামচ মুখে নিয়ে জন্মলাভ করে না। কঠোর প্ররিশ্রমের মাধ্যমেই তা অর্জন করতে হয়।

.

.

 

Digital E-commerce Market Place  গ্রুপ হাজারও উদ্যোক্তাদের সমন্বয়ে গঠিত একটি বন্ধন। যেখানে লক্ষাধিক উদ্যোক্তা কাজ করে যাচ্ছেন। গড়ে তুলেছেন নিজের পরিচিত সহ ব্যবসায়িক কাঠামো। আজ অনেকেই সাবলম্বী। গ্রুপের ফাউন্ডার MD. ALAMGIR HOSSAIN  হলেও এখন গ্রুপটি সকলের। কারণ সকল উদ্যোক্তার কঠোর পরিশ্রমে গড়ে উঠেছে Digital E-commerce Market Place .  আজও হাজার হাজার নতুন উদ্যোক্তারা স্বপ্ন দেখছেন এখান থেকে সাবলম্বী হওয়ার। দিন দিন যুক্ত হচ্ছেন হাজারও উদ্যমী নতুন উদ্যোক্তা।

এই গ্রুপে প্রধান যে বিষয় সেটা হলো : এই গ্রুপ হিংসুকের কোন স্থান নেই। এখানে কেউ প্রতিদ্বন্ধী নয়, সবাই সহযোগী। একজনের পাশে আরেকজন  সার্বক্ষনিক সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছেন। এক কথায় – মায়ের পেটের ভাই-বোনের মত। এডমিন প্যানেল সব সময় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন উদ্যোক্তার দিকে। সব সময় কথা বলে উদ্যোক্তার উজ্জল ভবিষ্যৎ নিয়ে। যার জন্য Digital E-commerce Market Place সবার কাছে  পছন্দের জায়গা হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। স্থান করে নিয়েছে প্রত্যেক উদ্যমী হৃদয়ের মনিকোঠায়।

Digital E-commerce Market Place গ্রুপে একজন সফল উদ্যোক্তার হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে  যুক্ত Rowshon Dalia আপু।

প্রথমে তার কিছু পরিচয় তুলে ধরা হলো-

.

নাম : Rowshon Dalia

বাসা : মগবাজার, ঢাকা।

কাজ করছেন : মগবাজার, ঢাকা থেকে।

ব্যবসায়িক পেইজ : Rowshon’s

সন্তান : তিন সন্তানের জননী।

ইউনিক প্রোডাক্ট : সুস্বাদু সকল রান্না ও  মেয়েদের সব ধরনের পোষাক।

বিশ্বস্থতা : 100% বিশ্বস্থতা নির্ভর লোক। যাকে চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করা যায়।

.

.

তিনি জানেন যে, তাকে সঠিক জায়গায় পরিশ্রম করতে হবে, ভুল জাগয়ায় পরিশ্রম করলে কোন লাভ হবে না।

Digital E-commerce Market Place গ্রুপে যুক্ত হয়েই শুরু করে দেন তার কঠোর পরিশ্রম । দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যান নিজের সফলতা ছিনিয়ে আনার জন্য। পারিবারিক সব ধরনের প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে চলতে থাকেন নিজের লক্ষ্যের দিকে। কোন কিছুই তাকে আটকিয়ে রাখতে পারিনি । উদ্যমী এক যোদ্ধার ন্যায় চালিয়ে যাচ্ছেন তার ব্যবসায়িক টেকনিক। অনলাইন ব্যবসায় সফল হতে প্রথমে যে জিনিসটি দরকার তা হলো বেশি বেশি নিজের পরিচিতি বাড়ানো। তাই নিজেকে সকলের সাথে পরিচিতি করানোর জন্য গ্রুপের উত্তম পন্থাটি বেছে নেন। আর এর জন্য নিজেকে পরিচিত করার সুবর্ণ সুযোগ হলো গ্রুপে টপ টেন কন্ট্রিবিউটর তালিকায় নিজের জায়গা করে নেওয়া। গ্রুপে টপ টেন হতে গিলে ২৮ দিনে সর্বোচ্চ পোস্ট, লাইক-কমেন্ট করতে হবে। তাহলে টপ টেন কন্ট্রিবিউটর তালিকায় যাওয়া যায়। তাছাড়া সম্ভব না। টপ টেন কন্ট্রিবিউটর তালিকা ফেসবুক অটোমেটিক ভাবেই গ্রুপে শো করে, এতে এডমিন প্যানেলের কোন হাত নেই।

যেই সিদ্ধান্ত সেই কাজ। শুরু হয়ে গেল পোস্ট, লাইক-কমেন্টর ঝড়।  তার লাইক-কমেন্টের ঝড়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাকে পর পর কয়েক বার কমেন্ট ব্লক করে দেন। নাছর বান্দা বসে থাকার নয়, লাইক-কমেন্ট ব্লক হয়েছে তাতে কি, পোস্ট করা বাদ দিলেন না, বেশি বেশি পোস্ট করতে শুরু করলেন । কমেন্ট ব্লক ছাড়ার পর আবার শুরু করলেন লাইক-কমেন্টের ঝড়। এবারও আগের অবস্থা , ফেসবুক কর্তৃপক্ষের নজর পড়ে যায়। পূনরায় তাকে কমেন্ট ব্লক করা হয়। তবুও একমিনিটের জন্যেও নিজের মন কে ভেঙ্গে ফেলেনি। নিজের মনকে শক্ত করে, ধৈর্য্য ধরে লেগে থাকে গ্রুপে। সফলতার জন্য আলাদা রাস্তা বেছে নিলেন।

দীর্ঘ কয়েক মাস চেষ্টা করার পর টপ 20 তে নিজের জায়গা করেন। সেটা দেখে সে আরো উৎসাহিত হোন। চালিয়ে যান নিজের কঠোর পরিশ্রম । নিজের ইউনিক প্রোডাক্ট গুলোর ছবি দিয়ে একে একে পোস্ট করতে থাকেন। সাথে লাইক-কমেন্ট তো আছেই। আরো কয়েক মাস পর তার সফলতা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। এটা দেখে আরো উৎসাহিত হোন। সফলতার প্রথম ধাপ অনেক কঠিন, তা জেনেও চেষ্টা চালিয়ে যান।

দীর্ঘ  আরো কয়েক মাস পর টপ টেন কন্ট্রিবিউটরের 10 নম্বরে নিজের জায়গা করে নেন। এক দিকে তার ব্যবসায়িক প্রসার অন্য দিকে গ্রুপে টপ টেন কন্ট্রিবিউটরে নিজের নাম । একটা অন্যরকম সুখ তার মনের ভিতর বিরাজ করে। উদ্যমী উদ্যোক্তা হওয়ার তার চাহিদা আরো বেড়ে গেল। যে নিয়ত করলো, Digital E-commerce Market Place গ্রুপের টপ টেন কন্ট্রিবিউটরের প্রথম হবেন।

যেই সিদ্ধান্ত সেই কাজ। আবার শুরু হয়ে গেল পোস্ট, লাইক-কমেন্টর ঝড়।  তার লাইক-কমেন্টের ঝড়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাকে পর পর আবার কয়েক বার কমেন্ট ব্লক করে দেন। নাছর বান্দা বসে থাকার নয়, লাইক-কমেন্ট ব্লক হয়েছে তাতে কি, পোস্ট করা বাদ দিলেন না, বেশি বেশি পোস্ট করতে শুরু করলেন । কমেন্ট ব্লক ছাড়ার পর আবার শুরু করলেন লাইক-কমেন্টের ঝড়। এবারও ঠিক আগের অবস্থা , ফেসবুক কর্তৃপক্ষের নজর পড়ে যায়। পূনরায় তাকে আবার কমেন্ট ব্লক করা হয়। তবুও একমিনিটের জন্যেও নিজের মন কে হতাশার কালো আঁধার ভাসিয়ে দেননি। নিজের মনকে শক্ত করে, ধৈর্য্য ধরে লেগে থাকে গ্রুপে।

দীর্ঘ  আরো বেশ কয়েক মাস পর কাঙ্খিত সেই  টপ টেন কন্ট্রিবিউটরের 1 নম্বরে নিজের জায়গা করে নেন।  চর্তুদিকে তার ব্যবসায়িক প্রসার হতে লাগলো। সুন্দর সুন্দর রিভিউ আসতে লাগলো। তার মধ্যে  সেই কাঙ্খিত স্বপ্ন  গ্রুপে টপ টেন কন্ট্রিবিউটরে প্রথমে নিজের নাম । এ আনন্দের যেন শেষ নেই ।

.

.

.

.

সফলতা একদিনে আসে না। সফলতার পিছনে হাজারও ব্যর্থতা লোকিয়ে থাকে। লোকেরা আপনার প্রচেষ্টা বা ব্যর্থতার কাহিনী শুনবে না। তারা শুধু আপনার সফলতাকে দেখবে।

এভাবে পর পর বেশ কয়েক মাস যাবৎ গ্রুপের টপ টেন কন্ট্রিবিউটর হওয়ায়, এবং চোখ পড়ে এডমিন প্যানেলের।  এছাড়া কিছু কিছু মেম্বার তো অভিযোগ করে বসেন, সে যদি গ্রুপের টপ টেন কিন্ট্রবিউটর তালিকায় থাকেন, তাহলে আর কেউ টপ টেন আসতে পারবে না। আমাদের কি তাহলে কোন সুযোগ হবেনা। আমাদের বিজনেজ কি কখনো প্রোমোট করা হবে না।

 

কয়েক জনের এমন অভিযুগে বিপাকে পড়ে গেল এডমিন প্যানেল। একজন এক্টিভ উদ্যমী উদ্যোক্তাকে কিভাবে টপ টেন থেকে রিমুভ করা যায়। আবার তাও যদি না করা হয়, তাহলে অন্য নতুন উদ্যোক্তারা সুযোগ পাবে না। হাজার চিন্তা ভাবনা করে তাকে টপ টেন থেকে রিমুভ করার সিদ্ধান্তু নেওয়া হয়।

যেই সিদ্ধান্ত সেই কাজ। রিমুভ করা হয় সুপার ডুপার এক্টিব মেম্বার রওশন ডালিয়া আপুকে এবং এডমিন প্যানেল তাকে হৃদয়ের মনিকোঠায় জায়গা করে দেন। তার স্থান হয় গ্রুপের এডমিন প্যানেলে। বর্তমানে রওশন ডালিয়া আপু একজন গ্রুপের এডমিন প্যানেলের সদস্য।

.

সফলতা একদিনে আসে না। সফলতার পিছনে হাজারও ব্যর্থতা লোকিয়ে থাকে। লোকেরা আপনার প্রচেষ্টা বা ব্যর্থতার কাহিনী শুনবে না। তারা শুধু আপনার সফলতাকে দেখবে।

.

.

☑ সব শেষে আপনাকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি ,  আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগটি  আপনাদের যদি ভালো লাগে তবে সর্বদা আমাদের পাশে থেকে আমাদের সাহস বাড়াতে পোস্ট গুলোতে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের কাজের স্পৃহা আরো বাড়িয়ে দিতে আপনারা বিশেষ ভূমিকা রাখবেন এবং সেই সাথে আপনার একটি শেয়ার হয়তো আপনার নিকটস্থ কারো জন্য একটি নতুন দরজা খুলে দিতে পারে । সেই আশা বাদ ব্যক্ত করে সবাইকে আবারো ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় নিচ্ছি।  আজ এ পর্যন্ত । সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন। দেখা হবে পরবর্তী নতুন কোন আর্টিকেলে।  আল্লাহ হাফেজ।

.

.

.

☑ সব শেষে আপনাকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি ,  আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগটি  আপনাদের যদি ভালো লাগে তবে সর্বদা আমাদের পাশে থেকে আমাদের সাহস বাড়াতে পোস্ট গুলোতে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের কাজের স্পৃহা আরো বাড়িয়ে দিতে আপনারা বিশেষ ভূমিকা রাখবেন এবং সেই সাথে আপনার একটি শেয়ার হয়তো আপনার নিকটস্থ কারো জন্য একটি নতুন দরজা খুলে দিতে পারে । সেই আশা বাদ ব্যক্ত করে সবাইকে আবারো ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় নিচ্ছি।  আজ এ পর্যন্ত । দেখা হবে পরবর্তী নতুন কোন আর্টিকেলে ততক্ষনে  সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন। ।  আল্লাহ হাফেজ।

.

আমাদের আরো পপুলার আর্টিকেল

 

Spoken English Course :

Model Test :

Health Tips :

Outsourcing/Online Income :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!