Facebook Marketing

পোস্ট রিচ কম হওয়ার অন্যতম কারণ ও তার সমাধান

SM ALAMGIR

ফেসবুক আমাদেরকে ফ্রিতে বিজ্ঞাপন দেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। আপনি আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস কিংবা আপনার কোম্পানি ব্রান্ডিং করার জন্য অতি সহজেই without cost এ প্রচার করতে পারছেন।  Facebook এর মাধ্যমে প্রোডাক্ট ও সার্ভিস আপনার টার্গেট অডিয়েন্স এর  কাছে একদম ফ্রিতে পৌঁছাতে পারছেন।
এ ক্ষেত্রে  ফেসবুক গ্রুপ আপনাকে সহায়তা করবেন। ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে আপনি আপনার প্রোডাক্ট, আপনার সার্ভিস, আপনার কোম্পানি এমনকি আপনার নিজেকেও একই সাথে ব্র্যান্ডিং করতে পারবেন। শুধু  দরকার আপনার পরিচিতি বাড়ানো। ফেসবুক গ্রুপে আপনি যত বেশি আপনার পরিচিতি বাড়াবেন, ততই আপনার প্রোডাক্ট, সার্ভিস বা আপনার কোম্পানি দ্রুত সফলতা মুখ দেখবে।

.

.

এখন আসি মূল প্রসঙ্গে……..

ফেসবুকে বিজনেস করতে গেলে একটি কথা অনেকবার শুনে থাকবেন, সেটা হলো যে, ফেসবুক আপডেটের কারনে রেসপন্স কমে গেছে।

না, এমন কথার যুক্তিতে ফেসবুক বিশ্বাসী নয়। ফেসবুক বলে তাঁরা আপডেট করে ব্যবহারকারীদের সুবিধার জন্য। তবে হ্যা, দিন দিন ফেসবুক ব্যবহারের প্রতিযোগিতা বাড়ছে, ফেসবুক চায় না, তার সব ইউজাররা সব সময় শুধু বিজনেস পোষ্ট বা স্পন্সরড পোষ্টই দেখুক। তাই আপনার কন্টেন্ট যদি ফেসবুক ইউজার পছন্দ না করে, তাহলে আপনার পোস্টের রিচ আস্তে আস্তে কমে যাবে।

আমরা অনেকেই অনেক গ্রুপের সাথে যুক্ত আছি। এমন কি দেখা যায় প্রায় সব গ্রুপে একই মেম্বার রয়েছেন।
  • আপনি যদি একটি পোস্ট একটি গ্রুপে পোস্ট করেন, তাহলে প্রথম দেখাতে সেই পোস্টে আপনার পরিচিত-অপরিচিত সবাই লাইক-কমেন্ট করে থাকেন।
  • কিন্তু আপনি যদি ঐ একই পোস্ট বিভিন্ন গ্রুপে পোস্ট করেন, তাহলে সেই পোস্টটি অধিকাংশ সময় একই ব্যক্তি বার বার দেখায় বিরক্ত প্রকাশ করে, তখন আর তারা একই ব্যক্তির একই ধরনের পোস্টে লাইক-কমেন্ট করে না। যার জন্য পোস্ট রিচ হয় না। কারণ যে পোস্টে বেশি লাইক-কমেন্ট হয় না, সেই পোস্টটি একদম নিচের দিকে চলে যায়। যা আর কখনই ফন্ট পেইজে আসেনা।
  • আপনি যদি নিয়মিত পোষ্ট আপডেট না করেন তাহলে আপনার পোস্টের রিচ  কমে যাবে।
  • অ্যাডভার্টাইজিং হল ফেসবুকের সাথে বিজনেস ওনারদের সম্পর্ক বজায় রাখার একটি কৌশল। আপনি বন্ধ করে দিলে ফেসবুকও আপনার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করবে।
  • আপনি যদি  সব সময় আপনার বিজনেস নিয়েই  পোষ্ট করেন ? তাহলে ভিজিটর বিরক্ত হয়ে আপনার পোস্ট ইগনর করবে।

.

.

সমাধান……….

আপনি আপনার ভালো লাগার সব কয়টি গ্রুপে পোস্ট করতে পারেন। এটা দোষের নয়। বরং যত পারেন, তত পোস্ট করুন। এমন কি গ্রুপে আপনার প্রোডাক্ট এর ছবি দিয়ে এত বেশি পরিমাণে পোস্ট করুন ,  যাতে কেউ  গ্রুপে ঢুকেই আগে আগেই যেন আপনার প্রোডাক্ট গুলো দেখতে পায়। যখন গ্রুপে আপনার প্রোডাক্ট বেশি বেশি দেখা যাবে, তখন কাস্টমার আপনার প্রোডাক্ট ক্রয়ের প্রতি বেশি আগ্রহ জন্মাবে। আশাকরি আপনার সেলও বৃদ্ধি পাবে। ইনশাআল্লাহ

  • প্রতিদিন পোষ্টঃ প্রতিদিন আপনাকে  কিছু না কিছু পোষ্ট করতে হবে। প্রয়োজনে সিডিউল পোষ্ট করুন। যাতে এক সাথে আপনি পোস্ট করে রাখলেন, সময় মত একের পর এক পাবলিশ হতে থাকবে।
  • ভাল কন্টেন্ট তৈরি করুনঃ কাস্টোমারকে আকৃষ্ট করবে এরকম পোষ্ট করুন। আপনি  সেল পোষ্ট যত গুলো করবেন, তার চেয়ে বেশি উপকারী কন্টেন্ট পোস্ট করবেন। এতে কাস্টমার আপনার প্রতি আকৃষ্ট হবে। এবং আপনার পোস্টের রিচও বেড়ে যাবে।
  • ভিডিও আপলোড করুনঃ  ভিডিও কাস্টোমারের সব থেকে বেশি মনোযোগ ধরে রাখতে সাহায্য করে। সুতরাং ভালো মানের ভিডিও আপলোড  করুন।
  • প্রমোট করুন ঃ  দীর্ঘ দিন প্রোমোট না করে থাকলে ১৫-৩০ দিনের টার্গেটে প্রোমোট দিন। কত লাইক আসল সেটির ভাবনার মধ্যে আনবেন না। পোস্ট রিচ হওয়া বেশি জরুরি।
  • একই পোস্ট বিভিন্ন গ্রুপে পোস্ট করবেন না। প্রত্যেকটি গ্রুপে ভিন্ন ভিন্ন পোস্ট করুন। একই ব্যক্তির পোস্টে কখনই একই কমেন্ট বার বার করবেন না। পোস্ট না পড়ে কিংবা ছবির মর্ম না বুঝে কেউ কমেন্ট করবেন না।
  • কমেন্টের রিপ্লাই দিন ঃ  প্রত্যেক কমেন্টের রিপ্লাই দিন। এমন কি কমেন্টে আলোচনা করুন।
  • যে কাজটি সব সময় করার চেষ্টা করবেন ঃ প্রত্যেক পোস্টে কিছু নতুনত্ব যুক্ত করুন। লেখার ধরণ পরিবর্তন করুন। ভাষাগত পরিবর্তন আনুন। প্রত্যেক পোস্টে কিছু আকর্ষণ প্রতিস্থাপন করুন। যাতে অডিয়েন্স আপনার পরবর্তী পোস্ট পড়ার জন্য অপেক্ষা করে।
.
.

☑ সব শেষে আপনাকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি ,  আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগটি  আপনাদের যদি ভালো লাগে তবে সর্বদা আমাদের পাশে থেকে আমাদের সাহস বাড়াতে পোস্ট গুলোতে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের কাজের স্পৃহা আরো বাড়িয়ে দিতে আপনারা বিশেষ ভূমিকা রাখবেন এবং সেই সাথে আপনার একটি শেয়ার হয়তো আপনার নিকটস্থ কারো জন্য একটি নতুন দরজা খুলে দিতে পারে । সেই আশা বাদ ব্যক্ত করে সবাইকে আবারো ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় নিচ্ছি।  আজ এ পর্যন্ত । সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন। দেখা হবে পরবর্তী নতুন কোন আর্টিকেলে।  আল্লাহ হাফেজ।

.

.

.

আমাদের আরো পপুলার আর্টিকেল

 

Model Test :

Health Tips :

Outsourcing/Online Income :

Others Articles :

9 Comments

  1. অনেক সুন্দর ভাবে পয়েন্টগুলি উপস্থাপন করেছেন ভাইয়া,ধন্যবাদ। আসলে আমাদের সকলেরই এই জিনিসগুলো মাথায় রাখা উচিত,যদি ভালোভাবে কিছু করতে চাই

  2. অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। সময়োপযোগী একটা লিখা। অনেক উপকৃত হলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!