Digital Marketing

বর্তমান সময়ে অনলাইনে বিক্রয় বৃদ্ধিতে যে ৪ টি কাজ আপনাকে করতেই হবে..!!! SM ALAMGIR

বিক্রয় বৃদ্ধির কৌশল | SM ALAMGIR

অনলাইন বিজনেস  বলতে আমরা কি বুঝি ….?

অনলাইন প্লাটফর্ম গুলো ব্যবহার করে আমরা যে পণ্য সামগ্রী কেনা-বেচা করি, সেটাকেই আমারা অনলাইন বিজনেস বলে থাকি। বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মানুষেরে উদ্যোক্তা হওয়ার প্রবল ইচ্ছা প্রকাশ করে এবং অক্লান্ত পরিশ্রমও করে। কিন্তু কিছুদিন পর আর সেই এনার্জী খুজে পায় না। ঠিক তখনই জীবন থেকে হারিয়ে ফেলে উদ্যোক্তা নামক শব্দটি।

আমি জানি আপনি এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়বেন না। কারণ আপনার মস্তিষ্ক বা আপনার মনমানসিতকা কিংবা পিছের লোকে কথার প্রভাবে আপনাকে আপনার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাইতে দিবে না। আর আপনিও আপনার লক্ষ্যে পৌঁছাইতে চান না। যদি আপনি, আপনার সফলতা নিজের চোখে দেখতে চাইতেন, তাহলে পোস্ট বা উপকারী লেখা যত বড়ই হোক না কেন, তা আপনি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত কয়েকবার পড়তেন।  কথায় আছে “More you Read, More you Learn” যত পড়িবে, ততই শিখিবে।

 

যদি পোস্টটি বা লেখাটি সম্পূর্ণ পড়তে না পারেন, তাহলে আর কষ্ট করে পড়ার দরকার নেই। এখনই বন্ধ করে দেন। কারণ আপনার পক্ষ্যে এত উপকারি লিখা সম্পূর্ণ  পড়া সম্ভব নয়। বাই বাই দিয়ে চলে যেতে পারেন।

আমার এত অহেতুক কথা বলা সত্ত্বেও যখন আপনি এখনো পড়া বাদ দেননি, তাহলে বুঝা যাচ্ছে “আপনাকে দ্বারাই সম্ভব”। তার মানে আপনি আপনার সফলতা দেখতে চান ….. কথা ঠিক কিনা…?

যাক তাহলে আর কথা বাড়াবো না, মূল প্রসঙ্গে চলে আসি।  একজন দক্ষ অনলাইন বিজনেস এক্সপার্ট-এর নিকট থেকে পরামর্শ নিন। কারণ প্রোডাক্টের ভিন্নতায় প্রোডাক্টের মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজি ভিন্ন হয়। তবে অনলাইন সেলস প্রসেস মোটামুটি একই থাকে। নিচে দেয়া ধাপগুলি ধারাবাহিক ভাবে করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

> একটি সুন্দর গোছানো ফেসবুক পেইজ তৈরি করতে হবে।

> মোটামুটি ভালো মানের একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে।

> প্রত্যেক প্রোডাক্টের ফটোগ্রাফি ভালো করতে হবে।

> নিয়মিত এসএমএস এবং ই-মেইল মার্কেটিং করতে হবে।

উপরের এই চারটি ধাপ সঠিক ভাবে সম্পন্ন করার জন্য একটি সঠিক পরিকল্পনা করতে হবে।

 

 

১) প্রথমে আপনার ফেসবুক পেজ টি র সোশ্যাল একসেপ্টনেস তৈরি করতে হবে লাইক ও কন্টেন্ট বাড়ানোর মাধ্যমে। কারণ পেইজ যত বেশি লাইক-ফলোয়ার থাকবে, আপনার পেইজে তত বেশি সেল হবে।

২) একটি মানসম্মত ওয়েবসাইট অত্যন্ত কার্যকরী ভাবে কাস্টমারকে আপনার অনলাইন শপে ধরে রাখতে পারে। একটি ওয়েবসাইট আছে,  মানে তিনি তার অনলাইন বিজনেসের ব্যাপারে সিরিয়াস এটি প্রমাণ করে।

 

৩) ভাল প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি কাস্টমারকে প্রোডাক্টের প্রতি আকৃষ্ট করে। এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়  একটি অনলাইন বিজনেসের জন্য।

৪) আপনার কাস্টমারের ইমেল ও ফোন নম্বর সংরক্ষণ করে পরবর্তী সময়ে তাদের বিভিন্ন সময়ে ইমেল করুন।এতে তারা আপনার বিজনেস। ও প্রোডাক্ট সম্পর্কে আপডেট থাকবে।

 

 

একটি নির্দিষ্ট মেয়াদি পরিকল্পনা তৈরি করে সেই মাফিক কাজ করতে থাকুন। অনলাইনে সেল আসতে কিছুটা সময় প্রয়োজন হয় তবে একবার যখন সেল আসে আর আপনার প্রোডাক্ট কোয়ালিটি যদি ভাল হয় তবে আপনার অনলাইন বিজনেস নিশ্চয় সফল হবে।

.

.

.

☑ সব শেষে আপনাকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি ,  আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগটি  আপনাদের যদি ভালো লাগে তবে সর্বদা আমাদের পাশে থেকে আমাদের সাহস বাড়াতে পোস্ট গুলোতে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের কাজের স্পৃহা আরো বাড়িয়ে দিতে আপনারা বিশেষ ভূমিকা রাখবেন এবং সেই সাথে আপনার একটি শেয়ার হয়তো আপনার নিকটস্থ কারো জন্য একটি নতুন দরজা খুলে দিতে পারে । সেই আশা বাদ ব্যক্ত করে সবাইকে আবারো ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় নিচ্ছি।  আজ এ পর্যন্ত । দেখা হবে পরবর্তী নতুন কোন আর্টিকেলে ততক্ষনে  সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন। ।  আল্লাহ হাফেজ।

.

আমাদের আরো পপুলার আর্টিকেল

 

Spoken English Course :

Model Test :

Health Tips :

Outsourcing/Online Income :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!