Health Tips

রাতে আকস্মিক মৃত্যুর বা হার্ট এ্যাটাক থেকে মুক্তির উপায়_ smalamgir

Health Tips

যদি সুস্থ্য থাকতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই Health Tips গুলো ভালো করে জানতে হবে। আজকের আয়োজন রাতে আকস্মিক মৃত্যুর বা হার্ট এ্যাটাক থেকে মুক্তির উপায়। লেখাটি সম্পূর্ণ পড়লে হার্ট এ্যাটাক থেকে মুক্তির উপায় পেয়ে যাবে। আশা করবো। লেখাটি প্রথম অব্ধি থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বেন।  sm alamgir
.
আপনারা অনেকেই রাত্রে বা ভোরে বাথরুমে যাবার জন্য ঘুম থেকে তারাতারি ওঠেন, তাদের জন্য ডাক্তারদের একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ। আশা করি সকলের উপকার হবে।
অধিকাংশ সময় আমরা শুনতে পাই  সুস্থ একজন মানুষ রাতের বেলায় হঠাৎ মারা গেছেন। এটার একটা কারন হচ্ছে রাতে বাথরুমে যাবার জন্য ঘুম ভেঙ্গে গেলে আমরা তাড়াহুড়ো করে হঠাৎ উঠে দাঁড়িয়ে পড়ি ।  যা ব্রেইনে রক্তের প্রবাহ হঠাৎকমিয়ে দেয়। এটা আপনার ইসিজি প্যাটার্নও বদলে দেয়। হুট্ করে ঘুম থেকে উঠেই দাঁড়িয়ে পড়ার দরুন আপনার ব্রেইনে সঠিক ভাবে অক্সিজেন সরবারহ করতে পারেনা, যার ফলে হতে পারে হার্ট এ্যাটাকের মত ঘটনাও। এমনকি মৃত্যুও হতে পারে। smalamgir
বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা ঘুম থেকে উঠে বাথরুমে যাবার আগে সবাইকে ‘দেড় মিনিট’ সময় নেয়ার একটি ফর্মুলা দিয়েছেন।
এই দেড় মিনিট সময় নেয়াটা জরুরি কারন এটা কমিয়ে আনবে আপনার আকস্মিক মৃত্যুর সম্ভাবনা।
হঠাৎ এই উঠে পড়ার সময়ে এই দেড় মিনিটের ফর্মুলা বাঁচিয়ে দিতে পারে আমাদের জীবন। দয়া করে কেউ অবহেলা করবেন না।
ফর্মুলা গুলো হলো-
১) যখন ঘুম থেকে উঠবেন, হুট করে না উঠে মিনিমাম তিরিশ সেকেন্ড বিছানায় শুয়ে থাকুন। আপনার ব্রেইনকে কিছুটা বুঝার সময় দিন। যেন ব্রেইন সঠিক ভাবে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারে।
২। বিছানায় তিরিশ সেকেন্ড শুয়ে থাকার পর উঠে বিছানায় বসে থাকুন তিরিশ সেকেন্ড। যেন দেহ কিছুটা রিলাক্স হয়।
৩। তার পর  শেষ তিরিশ সেকেন্ড বিছানা থেকে পা নিচের দিকে নামিয়ে বসুন। যেন নিজেকে খুব হালকা মনে হয়।
.
 এই দেড় মিনিটের কাজ শেষ হবার পর আপনার ব্রেইনে পর্যাপ্ত পরিমানে অক্সিজেন পৌছাবে যা আপনার হার্ট এ্যাটাকের ঝুঁকি একদম কমিয়ে আনবে। sm alamgir
খুবই গুরুত্তপুর্ন এই স্বাস্থ্য সম্পর্কিত তথ্যটি‌ ছড়িয়ে দিন আপনার পরিবার,বন্ধু এবং পরিচিত লোকজনের মাঝে। নিজে এই ফর্মুলাটি মেনে চলুন এবং অন্যদেরকেও মানতে বলুন।
মনে রাখবেন যেকোন বয়সের মানুষের ক্ষেত্রেই এমন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই সাবধান থাকতে হবে সবাইকেই।
ধন্যবাদ সবাইকে
.

 সব শেষে আপনাকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি ,  আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগটি  আপনাদের যদি ভালো লাগে তবে সর্বদা আমাদের পাশে থেকে আমাদের সাহস বাড়াতে পোস্ট গুলোতে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের কাজের স্পৃহা আরো বাড়িয়ে দিতে আপনারা বিশেষ ভূমিকা রাখবেন এবং সেই সাথে আপনার একটি শেয়ার হয়তো আপনার নিকটস্থ কারো জন্য একটি নতুন দরজা খুলে দিতে পারে । সেই আশা বাদ ব্যক্ত করে সবাইকে আবারো ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় নিচ্ছি।  আজ এ পর্যন্ত । সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন। দেখা হবে পরবর্তী নতুন কোন আর্টিকেলে।  আল্লাহ হাফেজ।

.

আমাদের আরো পপুলার আর্টিকেল

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!