Trending

সিলেটে বন্যার জন্য দায়ী কে ? | বন্যার বর্তমান পরিস্থিতি | SM ALAMGIR

সংগ্রহকৃত প্রতিবেদন

সিলেটে বন্যার বর্তমান পরিস্থিতি

সিলেটের বর্তমান বন্যার জন্য প্রকৃত পক্ষে কে দায়ী ? জানতে হলে পোস্টটি মনোযোগ সহকারে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন। প্রমাণ সহকারে যুক্তি দেখতে পারেন। কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

সোশ্যাল মিডিয়া খুললেই বন্যার নানান আলোচনা-সমালোচনা, গান, কবিতা এমনকি ট্রলের কোন শেষে নেই। একের পর এক চলতেই আছে। অনেকেই বলছে: এই বন্যার পিছনে সরকারের মদদ রয়েছে, কেউ বলছে বিএনপি, জামাতের হাত রয়েছে এমনকি অনেকেই আবার ভারতর উপর দোষ চাপাচ্ছে।

এই ভয়াবহ বন্যার জন্য প্রকৃত দায়ী কে, তার প্রকৃত বা আসল ব্যাখা শুনুন।

মানুষ সৃষ্টির একমাত্র উদ্দেশ্য হলো স্রষ্টার দাসত্ব করা। জীবন পরিচালনার জন্য মানুষ যাই করুক না কেনো তা যদি আল্লাহ ও রসূলের নির্দেশিত পদ্ধতি অনুযায়ী হয় তবে তা ইবাদত বলে গণ্য হবে। ফলে পৃথিবীতে তারা সুখে শান্তিতে বাস করবে। কিন্তু মানুষ আজ আল্লাহ ও তার রাসূলের পথ ছেড়ে মনগড়া জীবনযাপন করছে। এমনকি আমরা যারা স্রষ্টাতে বিশ্বাস করি তারাও আজ নাফরমানিতে লিপ্ত। যার কারণে আমাদের ওপর আল্লাহর পক্ষ থেকে আপতিত হচ্ছে অসংখ্য বিপদ।

আমরা দেখতে পাই, আমাদের দেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রতিনিয়ত ঘটছে নানা দুর্ঘটনা।  ঢাকার ব্যস্ততম এলাকা চকবাজারে ঘটে গেছে ইতিহাসের অন্যতম ভয়াবহ অগ্নিকান্ড , এরপরে বনানী, গুলশানসহ দেশের বিভিন্ন জায়গার ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি ঘটে গেল চট্টগ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড। মূলত জলে স্থলে তথা সারা বিশ্বে যে বিপর্যয় ছড়িয়ে পড়ছে তা মানুষের কুকর্মের কারণেই।

এ প্রসঙ্গে আল্লাহ তাআলা পবিত্র আল-কুরআনের সূরা রূমের 41 নং আয়াতে বলেন,
“জলে ও স্থলে মানুষের কৃতকর্মের দরুণ বিপর্যয় ছড়িয়ে পড়েছে। আল্লাহ তাআলা তাদের কর্মের শাস্তি আস্বাদন করাতে চান, যাতে তারা ফিরে আসে।” 

এ আয়াতের ব্যাখ্যায় তাফসীরে রূহুল মাআনীতে বলা হয়েছে, “‘বিপর্যয়’ বলে দুর্ভিক্ষ, মহামারি, অগ্নিকান্ড, পানিতে নিমজ্জিত হওয়ার ঘটনা বৃদ্ধি পাওয়া, সব কিছু থেকে বরকত উঠে যাওয়া, উপকারী বস্তুর উপকার কম হওয়া এবং ক্ষতি বেশি হওয়া ইত্যাদি বিপদাপদ বুঝানো হয়েছে।”  আর বর্তমানে ঘটছেও তাই। সুতরাং আয়াত থেকে জানা যায়, এসব পার্থিব বিপদাপদের কারণ হচ্ছে মানুষের গোনাহ ও কুকর্ম। তন্মধ্যে শিরক ও কুফর মারাত্মক। এরপর অন্যান্য গোনাহ।

 

সব গুনাহের কি শাস্তি হয় :

আমাদের বিপদাপদ যদিও পাপের কারণে হয়, কিন্তু দয়াময় আল্লাহ তাআলা আমাদের সব গুনাহের পরিণামে শাস্তি দেননা। পদেপদে আমরা যেভাবে গুনাহ করছি, আল্লাহ তাআলা যদি আমাদের সব গুনাহের শাস্তি দিতেন তবে তো আমরা সুন্দরভাবে বাঁচতেই পারতাম না। আল্লাহ তাআলা আমাদের অনেক গুনাহ ক্ষমা করে দেন এবং শাস্তি বাতিল করেন।

এ প্রসঙ্গে আল্লাহ তাআলা পবিত্র আল-কুরআনের সূরা শুরার 30 নং আয়াতে বলেন,
“তোমাদেরকে যেসব বিপদাপদ স্পর্শ করে, সেগুলো তোমাদেরই কৃতকর্মের কারণে। আর অনেক গুনাহ তিনি (আল্লাহ) ক্ষমা করে দেন।”

সুতরাং বুঝা গেল আমরা যে পরিমাণ গুনাহ করি আল্লাহ সে অনুযায়ী শাস্তি দেন না; বরং অনেক গুনাহ ক্ষমা করে দেন। আল্লাহু আকবার।

 

.

সব বিপদ কি গুনাহর কারণে হয় :

উদ্দিষ্ট আয়াত থেকে এ বিষয়টি আপত্তি হতে পারে- তাহলে কি সব বিপদ গুনাহের কারণে হয়? যদিও বিভিন্ন আয়াত দ্বারা বুঝা যায় বান্দার গুনাহের কারণেই বিপদ হয় তথাপিও আল্লাহ তাআলার ইচ্ছা বা অনুমতি ব্যতীত কিছুই হয় না। বান্দার কিছু বিপদ পূর্বে থেকেই নির্ধারিত যা আল্লাহ তাআলা বান্দার পরীক্ষার জন্য দিয়ে থাকেন। কখন, কিভাবে, কোথায় ও কী পরিমাণ শাস্তি হবে তা আগে থেকেই লিপিবদ্ধ। এরূপ বিশ্বাসের ফলে বিপদের কারণে বান্দার দুঃখবোধ হয়না। পক্ষান্তরে বিপদ থেকে মুক্তি পেলে অহংকার প্রকাশের কোনো অবকাশ থাকেনা।

এ প্রসঙ্গে আল্লাহ তাআলা পবিত্র আল-কুরআনের সূরা হাদীদ ২২,২৩ নং আয়াতে বলেন,
“পৃথিবীতে এবং তোমাদের ব্যক্তিগতভাবে যে বিপদ আসে তা আমার জগত সৃষ্টির পূর্বেই কিতাবে লিপিবদ্ধ। নিশ্চয় এটা আল্লাহর পক্ষে সহজ। আর এটা এজন্য যে, যাতে তোমরা যা হারাও তার জন্য দুঃখিত না হও এবং তিনি তোমাদের যা দেন তার জন্য উল্লসিত না হও। আর আল্লাহ তাআলা কোনো উদ্ধত অহংকারীকে পছন্দ করেন না।”

.

.
আল্লাহ তাআলা পবিত্র আল-কুরআনের সূরা তাগাবুন ১১ নং আয়াতে বলেন, আরও বলেন,
“আল্লাহ তাআলার নির্দেশ ব্যতীত কেনো বিপদ আসেনা, আর যে আল্লাহ তাআলার প্রতি বিশ্বাস করে, তিনি তার অন্তরকে সৎপথ প্রদর্শন করেন। আর আল্লাহ তাআলা সব বিষয়ে জানেন।” 

আলোচ্য আয়াত দ্বারা এটাই প্রতীয়মান হয় যে, তাকদীরে বিশ্বাসী মুমিন যখন বিপদে পতিত হয়, তখন তার অন্তরকে আল্লাহ তাআলা এ বিষয়ে স্থির বিশ্বাস স্থাপন করে দেন যে, যা কিছু হয়েছে, আল্লাহ তাআলার অনুমতি ও ইচ্ছায় হয়েছে। যে বিপদ তাকে স্পর্শ করেছে, তা অবধারিত ছিলো। কেউ একে ফেরাতে পারত না। আর যে বিপদ থেকে সে মুক্ত রয়েছে, তা থেকে মুক্ত থাকাই তার জন্য অবধারিত ছিলো।

মহান আল্লাহ তা’য়ালা সবাইকে মাফ করুন, সকল বিপদ আপদ থেকে রক্ষা করুন এবং আমাদের সকলকে সঠিক জ্ঞান দান করুন । আমিন।

.

☑ সব শেষে আপনাকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি ,  আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগটি  আপনাদের যদি ভালো লাগে তবে সর্বদা আমাদের পাশে থেকে আমাদের সাহস বাড়াতে পোস্ট গুলোতে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের কাজের স্পৃহা আরো বাড়িয়ে দিতে আপনারা বিশেষ ভূমিকা রাখবেন এবং সেই সাথে আপনার একটি শেয়ার হয়তো আপনার নিকটস্থ কারো জন্য একটি নতুন দরজা খুলে দিতে পারে । সেই আশা বাদ ব্যক্ত করে সবাইকে আবারো ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় নিচ্ছি।  আজ এ পর্যন্ত । সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন। দেখা হবে পরবর্তী নতুন কোন আর্টিকেলে।  আল্লাহ হাফেজ।

.

.

.

☑ সব শেষে আপনাকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি ,  আমাদের এই ছোট্ট উদ্যোগটি  আপনাদের যদি ভালো লাগে তবে সর্বদা আমাদের পাশে থেকে আমাদের সাহস বাড়াতে পোস্ট গুলোতে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের কাজের স্পৃহা আরো বাড়িয়ে দিতে আপনারা বিশেষ ভূমিকা রাখবেন এবং সেই সাথে আপনার একটি শেয়ার হয়তো আপনার নিকটস্থ কারো জন্য একটি নতুন দরজা খুলে দিতে পারে । সেই আশা বাদ ব্যক্ত করে সবাইকে আবারো ধন্যবাদ দিয়ে বিদায় নিচ্ছি।  আজ এ পর্যন্ত । দেখা হবে পরবর্তী নতুন কোন আর্টিকেলে ততক্ষনে  সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন। ।  আল্লাহ হাফেজ।

.

আমাদের আরো পপুলার আর্টিকেল

 

Spoken English Course :

Model Test :

Health Tips :

Outsourcing/Online Income :

2 Comments

  1. আসসালামু আলাইকুম ভাই সত্যি বিস্মিত হলাম আপনার লেখাটি পড়ে মানব জাতি আমরা কুকর্ম আর পাপ কাজে এতটাই লিপ্ত হয়ে পড়েছি যে আল্লাহ্ নির্ধারিত পথ ভুলে আমরা ভুল পথে হাঁটছি আমাদের সাস্থি অনিবার্য আল্লাহ্ আমাদের ক্ষমা করুন ও সকল মানবজাতিকে হেদায়েত দান করুন আমীন।আমরা নবীর উম্মত আমাদের দারিত্ব তার দেখানো পথ অনুসরণ করা তিনি তার উম্মতদের প্রতি এতটা ভালোবাসা দেখিয়েছেন যে একজন উম্মত কে ছেরে তিনি জান্নাতে প্রবেশ করবেন না সুবাহানাল্লাহ ।আমাদের এখনও সময় আছে আল্লাহ্ কে ভয় করা ও সঠিক পথে চলার।

    ধন্যবাদ ভাইয়া এতো সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করার জন্য।ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আল্লাহ দরবারে তাই কামনা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!